সব

ইন্টারনেট ছাড়াই মোবাইলে যে গেম খেলবেন

অনলাইন ডেস্ক

একটু ফাঁকা সময় পেলে অনেকেই মোবাইল ফোনে গেম খেলতে শুরু করেন। এখনকার স্মার্টফোনগুলো রীতিমতো গেম খেলার যন্ত্র। কিন্তু একসময় দুর্বল ইন্টারনেটের কারণে অনেকেই জনপ্রিয় গেমগুলো খেলতে পারেননি। কিন্তু এখন ইন্টারনেট সংযোগ ছাড়াই অনেক গেম খেলা যায়। সময় কাটাতে অনেকেই এসব গেমে মজে থাকেন। জেনে নিন এ রকম কয়েকটি গেম সম্পর্কে:

টেম্পল রানটেম্পল রান: টেম্পল রান গেমটি উন্মুক্ত হওয়ার পর থেকে বেশ জনপ্রিয়। এই গেমে অন্তহীন দৌড়াতে হয়। এ সময় পড়ে যাওয়া বা কোনো ফাঁদে পড়া যাবে না। পেছনে লেগে থাকে ভয়ংকর শত্রু। দৌড়ানোর সময় কয়েন সংগ্রহ ও অন্যান্য উপাদান সংগ্রহ করা যায়।

সাবওয়ে সারফারসসাবওয়ে সারফারস: টেম্পল রানের মতোই সাবওয়ে সারফার দৌড়ানোর গেম। অ্যান্ড্রয়েডে সবচেয়ে ডাউনলোড হওয়া গেমগুলোর একটি। পুলিশের তাড়া খেয়ে দৌড়াতে হয় এতে। যেকোনো সময় পুলিশ ধরে ফেলতে পারে। পুলিশকে পেছনে ফেলে দৌড়ানোর সময় কয়েন সংগ্রহের পাশাপাশি জেটপ্যাকস ও উপহার সংগ্রহ করা যায়।

ব্যাডল্যান্ডব্যাডল্যান্ড: ঘন বনের পটভূমিতে অ্যাকশন রোমাঞ্চকর গেম ব্যাডল্যান্ড। বনের মধ্যে কোথায় সমস্যা হচ্ছে তা একটি প্রাণীর নিয়ন্ত্রণ নিয়ে বের করতে হয়। বিভিন্ন ফাঁদ ও বাধা ডিঙিয়ে গন্তব্যে যেতে হয়। এতে ২৩টি স্তর আছে এবং মাল্টিপ্লেয়ার মোডে খেলা যায়।

ফ্রুট নিনজাফ্রুট নিনজা: আঙুলের ব্যায়াম করতে চাইলে ফ্রুট নিনজা খেলতে পারেন। স্ক্রিনে আসা সব ফল দ্রুত আঙুল চালিয়ে কাটতে হবে। তবে এর মধ্যে বিস্ফোরকগুলো কিন্তু এড়াতে হবে।

অ্যাসফল্ট ৮ এয়ারবোর্নঅ্যাসফল্ট ৮ এয়ারবোর্ন: এ গেমটি ছাড়া অফলাইন মোবাইল গেমের কোনো তালিকা পূর্ণ হওয়ার নয়। অ্যান্ড্রয়েডে অন্যতম সেরা রেসিং গেম এটি। এতে চারটি নিয়ন্ত্রণ অপশন থাকে। অবশ্য গেমটি খেলতে মোবাইলে স্টোরেজ বেশি থাকা দরকার।

লিম্বোলিম্বো: মজার টুডি পাজল গেম। পরিবেশের নানা উপাদান ব্যবহার করে ধাঁধা মিলিয়ে সামনে এগোনো যায়।


মাইনক্রাফট পকেট এডিশনমাইনক্রাফট পকেট এডিশন:
বিশাল দুনিয়া তৈরি করে তাতে টিকে থাকার সুযোগ গেমটিতে। সৃজনশীলতা কাজে লাগানোর সুযোগ আছে এতে। ক্রিয়েটিভ ও সারভাইভাল মোড ব্যবহার করে মাইন খোঁজা ও ভবন তৈরির কাজ এগিয়ে নেওয়া যাবে।

আলটোস অ্যাডভেঞ্চারআলটোস অ্যাডভেঞ্চার: তুষার পর্বতের পটভূমিতে রোমাঞ্চকর গেমটিতে আলটো ও তাঁর বন্ধুদের স্নোবোডিং করতে হয়। ক্রাশ হওয়া এড়িয়ে টিকে থাকতে হয় গেমারকে।

ওয়ার্ল্ড অব গুওয়ার্ল্ড অব গু: এটি আরেকটি মজার পাজল গেম। গেমারকে ব্রিজ তৈরি করতে হয়। দীর্ঘ টাওয়ার তৈরিতে গেমার ফ্রিস্টাইল মোড ব্যবহার করতে পারেন।

স্ম্যাশ হিটস্ম্যাশ হিট: ফার্স্ট পারসন রানিং গেম। গেমারকে বল ছুড়ে পথের বাধা দূর করতে হয়। গেমটিতে ৫০টি ভিন্ন রুম আছে ও ১১ স্টাইল আছে। গেমটি খেলতে মনোযোগ ও সময় ঠিক রাখা দরকার। তথ্যসূত্র: গ্যাজেটস নাউ।

খেলতে হবে বুদ্ধি খাটিয়ে

খেলতে হবে বুদ্ধি খাটিয়ে

নতুন গেমিং কেসিং

নতুন গেমিং কেসিং

যুদ্ধ হবে দৈত্য-দানবের সঙ্গে

যুদ্ধ হবে দৈত্য-দানবের সঙ্গে

গেমের ধারণা উদ্ভাবন নিয়ে কর্মশালা

গেমের ধারণা উদ্ভাবন নিয়ে কর্মশালা

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
1 2 3 4
 
আরও মন্তব্য

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

রাস্তা ছেড়ে রেসের মজা

গেমস রাস্তা ছেড়ে রেসের মজা

নিয়ম মেনে রাস্তাঘাটে কার রেসিং তো অনেক হলো, কিন্তু রেস যদি এমন হয় যেখানে...
রিয়াদ জোবায়ের
উইন্ডোজ পিসির জন্য বিনা মূল্যে গেম

উইন্ডোজ পিসির জন্য বিনা মূল্যে গেম

উইন্ডোজচালিত পিসির জন্য বিনা মূল্যে ‘মাস ইফেক্ট টু’ গেমটি...
অনলাইন ডেস্ক
আসছে ফাইনাল ফ্যানটাসি ফোরটিন

আসছে ফাইনাল ফ্যানটাসি ফোরটিন

রোমাঞ্চপ্রত্যাশী ভিডিও গেমপ্রেমীদের জন্য সুখবর। ফাইনাল ফ্যানটাসি ফোরটিন...
অনলাইন ডেস্ক
বছরের সেরা যে গেম

বছরের সেরা যে গেম

প্রতিক্রিয়া বা পর্যালোচনার নিরিখে গত বছরের শীর্ষ গেমের তকমা পেয়েছে...
অনলাইন ডেস্ক
অপহরণ চক্রের সঙ্গে শিশু বায়েজিদের ২১ দিন

অপহরণ চক্রের সঙ্গে শিশু বায়েজিদের ২১ দিন

রোজ সকালে ইনজেকশন পুশ করে অচেতন করে রাখত। ঠিকমতো খাবার দিত না। তার মতো আরও...
লন্ডনের পথে শফিক রেহমান

লন্ডনের পথে শফিক রেহমান

সাংবাদিক শফিক রেহমান টার্কিশ এয়ারলাইনসের একটি উড়োজাহাজে লন্ডনের উদ্দেশে রওনা...
ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে তীব্র যানজট

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে তীব্র যানজট

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা...
পিএসএলে ম্যাচ সেরা মাহমুদউল্লাহ

পিএসএলে ম্যাচ সেরা মাহমুদউল্লাহ

মাত্র চারটি বল খেলেছেন। একটি চারে ৮ রান করে অপরাজিত। তবু ম্যাচ সেরার পুরস্কার...
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
© স্বত্ব প্রথম আলো ১৯৯৮ - ২০১৭
সম্পাদক ও প্রকাশক: মতিউর রহমান
সিএ ভবন, ১০০ কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভেনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা ১২১৫
ফোন: ৮১৮০০৭৮-৮১, ফ্যাক্স: ৯১৩০৪৯৬, ইমেইল: info@prothom-alo.info