‘দল হয়ে উঠতে না পারাতেই ব্যর্থতা’

মাউন্ট মঙ্গানুই থেকে প্রতিনিধি | আপডেট: | প্রিন্ট সংস্করণ

 

টপ অর্ডারে বড় ইনিংস, কিছু ভালো জুটি, উইকেট পতনের জোয়ারে বাঁধ দেওয়ার সামর্থ্য-সেরা খেলা খেলতে পারলে এসব এমনিতেই হয়ে যেত। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্যি, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে একটাও বড় জুটি গড়তে পারেনি বাংলাদেশ। ব্যক্তিগত ইনিংসগুলোও মাঝারি গণ্ডির সীমানা ছাড়াতে পারেনি। সাকিবের ভাষায়, ‘এটাই আমাদের সমস্যা ছিল। পুরো সিরিজে আমরা তেমন কোনো জুটি গড়তে পারিনি। এমন হলে রান তাড়া করাটা কঠিন হয়ে যায়।’

সিরিজে নিজের বোলিংয়ে সন্তুষ্ট হলেও ব্যাটিং নিয়ে অতৃপ্তি আছে সাকিবেরও। কাল তো মাশরাফির বলে কেন উইলিয়ামসনের সহজ একটা ক্যাচও ফেললেন। এসব নিয়ে আত্মসমালোচনাও শোনা গেল তাঁর মুখে, ‘তামিমের ক্যাচটা অনেক কঠিন ছিল, তবে আমারটা সহজ ক্যাচই ছিল। কোনো অজুহাত দিয়ে লাভ নেই। তবে ইচ্ছে করে তো কেউ ক্যাচ মিস করতে চায় না। ফিল্ডিং পুরো দলের চেহারা ফুটিয়ে তুলতে পারে। ওদের আর আমাদের ফিল্ডিং দেখলেই বুঝতে পারবেন পার্থক্য কেমন ছিল।’

 ১২ জানুয়ারি থেকে বেসিন রিজার্ভে প্রথম টেস্ট। আজ ওয়েলিংটনে গিয়ে কাল থেকেই পুরোদমে টেস্টের প্রস্তুতিতে নেমে পড়বে বাংলাদেশ দল। আর সবার মতো সাকিবও বুঝতে পারছেন, সফরের কঠিনতম অংশটি সবে শুরু হচ্ছে। নিউজিল্যান্ডের মাটিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আর যাই হোক টেস্ট খেলাটা সহজ হবে না, ‘টেস্টের উইকেট সম্পূর্ণ আলাদা হবে। আমাদের কাজটা এর চেয়েও অনেক বেশি কঠিন হবে।’

টি-টোয়েন্টিতে মুশফিকুর রহিমের অভাবটা বড় বেশি উপলব্ধি করেছে বাংলাদেশ দল। তবে হ্যামস্ট্রিংয়ের চোট কাটিয়ে টেস্টে ফেরার জন্য প্রস্তুত টেস্ট অধিনায়ক। সাকিবেরও আশা, ‘উনি আমাদের ব্যাটিংয়ের অন্যতম ভরসা। তাঁর না থাকাটা স্বাভাবিকভাবেই আমাদের জন্য বড় মিস। আশা করি, উনি টেস্টে খেলবেন এবং ভালো খেলবেন।’

 

 

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনি কি পরিচয় গোপন রাখতে চান
আমি প্রথম আলোর নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
View Mobile Site
   
সম্পাদক ও প্রকাশক: মতিউর রহমান
সিএ ভবন, ১০০ কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫
ফোন: ৮১৮০০৭৮-৮১, ফ্যাক্স: ৯১৩০৪৯৬, ই-মেইল: info@prothom-alo.info
 
topউপরে