শেষ ম্যাচে পুরোনো বাংলাদেশ

তারেক মাহমুদ, নেলসন থেকে | আপডেট: | প্রিন্ট সংস্করণ

ছবিটিকে পুরো ওয়ানডে সিরিজের প্রতীকী ভেবে নিতে পারেন। কাল চতুর্থ ওভারে মোস্তাফিজের বলে স্লিপে নিল ব্রুমের ক্যাচ ফেলেছেন ইমরুল কায়েস। এভাবেই বারবার সুযোগ হাতছাড়া করে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ খুইয়ে আক্ষেপে পুড়েছে বাংলাদেশ দল l এএফপিথার্টি ফার্স্ট নাইটেও নিস্তব্ধ ট্রেইলওয়েজ হোটেল। অদূরের সিটি সেন্টার থেকে ভেসে আসা আতশবাজির শব্দও সেই নিস্তব্ধতা ভাঙতে পারেনি।
নেলসনের নববর্ষ উদ্যাপন খুব যে জাঁকজমকপূর্ণ, তা নয়। সিটি সেন্টারে জড়ো হয়ে মধ্যরাত পর্যন্ত নাচ-গান-পান। ঘড়ির কাঁটা রাত সাড়ে ১২টা পার হতেই সব ভাঙা হাট। ট্রেইলওয়েজ হোটেল সম্ভবত ঘুমিয়ে পড়েছিল আরও আগে। সত্যিই ঘুমিয়েছিল তো? হোটেলের বেশির ভাগ অতিথিরই যে কাল রাতে ঘুম আসার কথা নয়!
সিরিজ হার হয়ে গিয়েছিল আগেই। শেষ ম্যাচে সান্ত্বনার জয়ের আশায় ছিল বাংলাদেশ দল। জয়টা হতে পারত বাকি সফরের টনিক। কিন্তু ঘরের সাফল্য বাইরে টেনে আনা গেল না। ৯ উইকেটে ২৩৬ রান করে ৮ উইকেটের পরাজয়।
দ্বিতীয় ওয়ানডেতে তবু বোলিংটা ভালো হয়েছিল। কিন্তু কাল না হলো বোলিং, না ব্যাটিং। স্যাক্সটন ওভালে যেন ফিরে এল বাংলাদেশের পুরোনো দিন। ছন্নছাড়া ক্রিকেটের প্রদর্শনী বছরের শেষ দিনটাকে ভরিয়ে দিল হতাশায়। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সর্বশেষ দুটি সিরিজে নিজেদের মাঠে ‘বাংলাওয়াশে’র স্বাদ নিয়েছিল বাংলাদেশ। এই দলের বিপক্ষেই নিউজিল্যান্ডে এসে পুড়তে হলো হোয়াইটওয়াশের জ্বালায়।
কন্ডিশনের ‘জুজু’ এবার ওয়ানডে সিরিজে অন্তত ছিল না। ক্রাইস্টচার্চের পর নেলসনেও উইকেট ছিল সহজ, ব্যাটিংবান্ধব। তবে সেটা এতটা নয় যে বোলারদের কোমরে হাত দিয়ে দাঁড়িয়ে পড়তে হবে। তবু বাংলাদেশ কিছুই দেখাতে পারল না। না বল হাতে, না ব্যাট হাতে। গত দেড়-দুই বছরে টানা সাফল্যে ভাসতে থাকা দলটা নিউজিল্যান্ডে এসে ফিরে গেল পুরোনো দিনে।
টস জিতে ব্যাটিং নিয়েছিলেন মাশরাফি। দুই ওপেনার তামিম ইকবাল-ইমরুল কায়েস শুরুটা করেছিলেন চমৎকার। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ম্যাচে বাংলাদেশের একমাত্র প্রাপ্তি হয়ে থাকল তাঁদের ১০২ রানের জুটিটাই। বাকি সব নিউজিল্যান্ডের সাফল্যের গল্প।
প্রায় সাড়ে ছয় বছর পর ওয়ানডে ক্রিকেটে ফেরা নিল ব্রুমের ভাগ্য খুলে দিল বাংলাদেশ দল। আগের ম্যাচে সেঞ্চুরি করেছিলেন, কাল ৯৭ রান করে প্রত্যাবর্তনের সিরিজটা করে রাখলেন স্মরণীয়। বাংলাদেশ দলকে ধন্যবাদ দিতে পারেন ব্ল্যাক ক্যাপদের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনও। ভারতের বিপক্ষে গত অক্টোবরে সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন। এরপর কালকের আগে খেলা আট ম্যাচে ফিফটি করেছেন মাত্র একটি। ব্রুমের সঙ্গে ১৭৯ রানের দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে অপরাজিত ৯৫ রানের ইনিংস দিয়ে সেই বন্ধ্যা সময়ের ইতি টানলেন উইলিয়ামসন।
বোলিংয়ের শুরুতে আশাই জেগেছিল। এক ম্যাচ বিশ্রাম নিয়ে ফেরা মোস্তাফিজুর রহমান ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই আঘাত আনেন টম ল্যাথামকে এলবিডব্লু করে। পরের ওভারের প্রথম বলে হ্যামস্ট্রিং চোটে পড়ে মাঠ ছাড়েন মার্টিন গাপটিল। ১৬ রানের মধ্যে দুই ওপেনারের ফিরে যাওয়া চাপেই ফেলে দেয় স্বাগতিকদের। সেই চাপ আরও বাড়তে পারত ইনিংসের চতুর্থ ওভারে। মোস্তাফিজের বলে স্লিপে সহজ ক্যাচ দিয়েছিলেন তখনো শূন্য রানে থাকা ব্রুম। কিন্তু স্লিপে দাঁড়ানো ইমরুল কায়েসের হাতে পড়েও বেরিয়ে গেল বলটা, ম্যাচটাও।
এর আগে ব্যাটিংয়ে শুরুটা ছিল ভালো। কিন্তু তামিম-ইমরুলের ওপেনিং জুটির পর সবই তাসের ঘর। মিডল অর্ডারের ব্যর্থতায় পরের ৭৭ রানের মধ্যে পড়েছে ৭ উইকেট। দুই শর নিচে অলআউট হওয়াটাও তখন অস্বাভাবিক হতো না। সেই লজ্জা থেকে বাঁচিয়েছে নুরুল হাসানের ৩৯ বলে ৪৪ রান।
টেলিভিশন রিপ্লে ইমরুলের ক্যাচ নিয়ে কিছুটা সন্দেহ ছড়ালেও এ নিয়ে কোনো সন্দেহই নেই যে, বাংলাদেশ দলের বাকি সব ব্যাটসম্যান উইকেট বিলিয়ে দিয়ে এসেছেন।
তামিমের ৫৯ রানের ইনিংস শেষ হয়েছে নিশামের বলে এলোমেলো শট খেলে। হেনরির কাঁধের কাছে উঠে আসা বলে কট বিহাইন্ড হয়ে হঠাৎই থেমে যায় সাব্বিরের ইনিংস। সাউদির শর্ট বলের শিকার মাহমুদউল্লাহ উইকেটে মাত্র ৭ বল থেকে ৩ রান করেছেন। আর সাকিব ৩৫ বল খেলেও খুঁজে পাননি ব্যাটের ছন্দ। ১৮ রানে তাঁর উইকেটটা গেছে রনকির সরাসরি থ্রোয়ে রানআউট হয়ে।
নেলসন-পর্ব শেষ করে আজ দুপুরে ভাড়া করা বিমানে নেপিয়ার যাবে বাংলাদেশ দল। ট্রেইলওয়েজ হোটেলের নিস্তব্ধতা হয়তো ভর করবে এই উড়ালেও।
সিরিজের সেরা পাঁচ

ব্যাটসম্যান
ইনিংস রান সর্বোচ্চ গড় ১০০/৫০
নিল ব্রুম ৩ ২২৮ ১০৯* ১১৪ ১/১
টম ল্যাথাম ৩ ১৬৩ ১৩৭ ৫৪.৩৩ ১/০
কেন উইলিয়ামসন ৩ ১৪০ ৯৫* ৭০ ০/১
ইমরুল কায়েস ৩ ১১৯ ৫৯ ৩৯.৬৬ ০/১
তামিম ইকবাল ৩ ১১৩ ৫৯ ৩৭.৬৬ ০/১
বোলার
ওভার উইকেট সেরা গড় ইকোনমি
টিম সাউদি ২৮.৫ ৫ ২/৩৩ ২৮.২০ ৪.৮৯
সাকিব আল হাসান ২৮ ৫ ৩/৬৯ ৩৩.৮০ ৬.০৩
কেন উইলিয়ামসন ১৩ ৪ ৩/২২ ১১.৫০ ৩.৫৩
জেমস নিশাম ১৩ ৪ ৩/৩৬ ১৯.২৫ ৫.৯২
মোস্তাফিজুর রহমান ১৯.২ ৪ ২/৩২ ২৩.৫০ ৪.৮৬

 

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনি কি পরিচয় গোপন রাখতে চান
আমি প্রথম আলোর নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
View Mobile Site
   
সম্পাদক ও প্রকাশক: মতিউর রহমান
সিএ ভবন, ১০০ কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫
ফোন: ৮১৮০০৭৮-৮১, ফ্যাক্স: ৯১৩০৪৯৬, ই-মেইল: info@prothom-alo.info
 
topউপরে