কার্লসেনের টানা তিন

আপডেট: | প্রিন্ট সংস্করণ

ম্যাগনাস কার্লসেনের হাতেই বিশ্ব দাবা চ্যাম্পিয়নশিপের ট্রফি l এএফপিতিন সপ্তাহ, এক ডজন হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। সবশেষে টাইব্রেকারে চারটি র্যাপিড গেম। এরপরই পাওয়া গেল দাবার বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন। দাবার সিংহাসনে অবশ্য নতুন কারও অভিষেক হয়নি। পরশু যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে সের্গেই কারিয়াকিনকে হারিয়ে টানা তৃতীয়বারের মতো বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হলেন নরওয়ের ম্যাগনাস কার্লসেন। হেরে গেলেও মাথা উঁচু করেই দেশে ফিরছেন কারিয়াকিন। ২৬ বছর বয়সী রুশ গ্র্যান্ডমাস্টারের মধ্যে ভবিষ্যৎ চ্যাম্পিয়নের ছবিই আঁকছে দাবা-বিশ্ব।
পরশু গেছে কার্লসেনের ২৬তম জন্মদিন। নরওয়েজিয়ান গ্র্যান্ডমাস্টার জন্মবার্ষিকীতে নিজেই নিজেকে দিলেন সবচেয়ে বড় উপহার। ২৫ মিনিটের চারটি র্যাপিড গেমের প্রথম দুটিতে ড্র করলেও শেষ দুটিই জিতে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ ধরে রাখলেন। এবারের আগে ২০১৩ ও ২০১৪ সালে দুবার ভারতের বিশ্বনাথন আনন্দকে হারিয়ে মুকুট পরেছেন কার্লসেন।
কার্লসেনের এবারের প্রতিদ্বন্দ্বী কারিয়াকিন দাবার সবচেয়ে কম বয়সী গ্র্যান্ডমাস্টার। সেই কারিয়াকিন যে কার্লসেনের প্রতিদ্বন্দ্বী হয়েছেন, এতেই বিস্ময়ের সীমা ছিল না অনেকের। শেষ পর্যন্ত টেবিলের উল্টো পাশে বসা একজন প্রতিদ্বন্দ্বীই হননি কারিয়াকিন, একেবারে শেষ পর্যন্ত লড়ে গেছেন। দুজনের লড়াইটা এতই জমজমাট ছিল যে ১৯৫৪ সাল থেকে দাবা বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের সাক্ষী হওয়া গ্র্যান্ডমাস্টার লেভ আলবার্টের চোখে দাবার ইতিহাসের অন্যতম সেরা লড়াই এটি।
বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ ধরে রেখে সাড়ে পাঁচ লাখ ইউরো প্রাইজমানি জিতেছেন কার্লসেন, কারিয়াকিন পেয়েছেন সাড়ে চার লাখ ইউরো। লড়াইটা টাইব্রেকারে না গড়ালে অবশ্য ৫০ হাজার ইউরো কম পেতেন দুই দাবাড়ু। এএফপি, নিউইয়র্ক টাইমস।

 

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনি কি পরিচয় গোপন রাখতে চান
আমি প্রথম আলোর নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
View Mobile Site
   
সম্পাদক ও প্রকাশক: মতিউর রহমান
সিএ ভবন, ১০০ কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫
ফোন: ৮১৮০০৭৮-৮১, ফ্যাক্স: ৯১৩০৪৯৬, ই-মেইল: info@prothom-alo.info
 
topউপরে