rosAlo

আমেরিকার চিঠি

মাহফুজ রহমান | আপডেট: | প্রিন্ট সংস্করণ

Untitled-15এখন তোমার নেই ক্ষমতা; কেমন আছো? পত্র দিয়ো।
এক বিকেলে মেলায় কেনা সানগ্লাসটা
মাঝদুপুরে তোমার চোখে কেমন আছে, পত্র দিয়ো।
এই আষাঢ়ে কোন ছাতাটা আমার মতো খুব ব্যথিত
বৃষ্টি এলে দেয় ভিজিয়ে আজ তোমাকে, পত্র দিয়ো।
কোন কথাটা অষ্টপ্রহর চাও জানাতে কানে কানে,
কোন কথাটা উসকানি দেয়, ভাসতে বলে ক্ষোভের বানে
পত্র দিয়ো, পত্র দিয়ো।
আর না হলে মনটা দিয়ো হরতালেতে, আপত্তি নেই
গেলে যাবে জনতারই, কার কী তাতে?
আমি না হয় জিএসপিটায় বাদ সেধেছি, বাদ সেধেছি
তোমার দলের কথা ভেবে
আম্লীগকে ভীষণরকম ‘সাইজ’ করেছি, কী আসে-যায়?
এক জীবনে কতটা আর হতাশ হবে,
এক মানবী কতটা আর কষ্ট দেবে।

 

মূল কবিতা

প্রস্থান

হেলাল হাফিজ

 

Untitled-16এখন তুমি কোথায় আছো কেমন আছো, পত্র দিয়ো।
এক বিকেলে মেলায় কেনা খামখেয়ালী তাল পাখাটা
খুব নিশীথে তোমার হাতে কেমন আছে, পত্র দিয়ো।
ক্যালেন্ডারের কোন পাতাটা আমার মতো খুব ব্যথিত
ডাগর চোখে তাকিয়ে থাকে তোমার দিকে, পত্র দিয়ো।
কোন কথাটা অষ্টপ্রহর কেবল বাজে মনের কানে
কোন স্মৃতিটা উস্কানি দেয় ভাসতে বলে প্রেমের বানে
পত্র দিয়ো, পত্র দিয়ো।

আর না হলে যত্ন করে ভুলেই যেয়ো, আপত্তি নেই।

গিয়ে থাকলে আমার গেছে, কার কী তাতে?

আমি না হয় ভালোবেসেই ভুল করেছি ভুল করেছি,

নষ্ট ফুলের পরাগ মেখে

পাঁচ দুপুরের নির্জনতা খুন করেছি, কী আসে যায়?

 

এক জীবনে কতটা আর নষ্ট হবে,

এক মানবী কতটা আর কষ্ট দেবে।

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনি কি পরিচয় গোপন রাখতে চান
আমি প্রথম আলোর নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
View Mobile Site
   
সম্পাদক ও প্রকাশক: মতিউর রহমান
সিএ ভবন, ১০০ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫
ফোনঃ ৮১৮০০৭৮-৮১, ফ্যাক্সঃ ৯১৩০৪৯৬, ই-মেইলঃ info@prothom-alo.info
 
topউপরে