নাগালে রাখুন

ইজতেমায় যাঁরা অংশ নেবেন

আপডেট: | প্রিন্ট সংস্করণ

.আগামীকাল শুক্রবার বিশ্ব ইজতেমা শুরু হচ্ছে। প্রতিবছর এই জমায়েতে দেশ-বিদেশের অসংখ্য মানুষ অংশ নেন। ধুলাবালি, অপর্যাপ্ত বিশুদ্ধ পানি ও পয়োনিষ্কাশন, শীতে খোলা বা হালকা আচ্ছাদিত মাঠে অবস্থান, শারীরিক পরিশ্রম প্রভৃতি কারণে কারও কারও নানা রকমের স্বাস্থ্য সমস্যা দেখা দিতে পারে। অনেক বয়স্ক মানুষ ইজতেমায় অংশ নেন। তাঁদের অসুস্থ হওয়ার ঝুঁকি বেশি। তাই আগে থেকেই বাড়তি সচেতনতা জরুরি।
ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, হৃদ্রোগ, শ্বাসকষ্ট বা হাঁপানিসহ বিভিন্ন দীর্ঘমেয়াদি রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিরা অবশ্যই ইজতেমায় যাওয়ার আগে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করিয়ে চিকিৎসকের পরামর্শ নেবেন। প্রয়োজনীয় ইনসুলিন, ওষুধ, ইনহেলার সঙ্গে রাখতে ভুলবেন না। এসব নিয়মিত ওষুধ (যেমন রক্তচাপের ওষুধ, ইনহেলার বা ইনসুলিন) বন্ধ করা যাবে না। ডায়াবেটিস রোগীর ইনসুলিন বা ওষুধ গ্রহণের পর নির্দিষ্ট সময়ে খাবার খাবেন, নইলে রক্তের শর্করার মাত্রা কমে যেতে পারে। এ সমস্যার নাম হাইপোগ্লাইসেমিয়া। এটা প্রতিরোধের জন্য সঙ্গে কিছু শুকনো খাবার (যেমন বিস্কুট, চকলেট বা গ্লুকোজ) রাখতে পারেন।
ঠান্ডা, ধুলোবালির কারণে এই সময় সর্দিজ্বর, কাশি, গলাব্যথা, সাইনোসাইটিসের সমস্যা বেশি দেখা যায়। হাঁচি-সর্দির জন্য অ্যান্টিহিস্টামিন (লোরাটিডিন, ফেক্সোফেনাডিন, সেটিরিজিন), কাশির জন্য থিওফাইলিন বা সালবিউটামল, জ্বরের জন্য প্যারাসিটামল সেবন করতে পারেন। প্রতিরোধের জন্য মাস্ক ব্যবহার করতে পারেন। যেখানে-সেখানে কফ বা থুতু ফেলবেন না।
বিশুদ্ধ পানির স্বল্পতার কারণে ডায়রিয়ার ঝুঁকি বেড়ে যেতে পারে। ডায়রিয়া হলে ওরস্যালাইনের পাশাপাশি ডাবের পানি, বিশুদ্ধ পানি ও তরল খাবার খেতে হবে। অতিরিক্ত ঝাল বা তেল-মসলাযুক্ত খাবার পেটে গ্যাসের সমস্যা তৈরি করে। তাই এগুলো এড়িয়ে সহজপাচ্য খাবার গ্রহণ করুন। এ সময় প্রচুর হাঁটতে হয় বলে পা সম্পূর্ণ ঢেকে রাখে, এমন নরম ও টেকসই জুতা পরা ভালো।
কিছু সাধারণ পরামর্শ
হাঁচি-কাশি দেওয়ার সময় মুখে রুমাল বা কাপড় ব্যবহার করুন, টয়লেট টিস্যু বা ঢিলা ব্যবহারের পর নির্দিষ্ট স্থানে ফেলুন। নির্ধারিত টয়লেট ব্যবহার করুন। খাওয়ার আগে ও টয়লেট ব্যবহারের পরে সাবান দিয়ে হাত ধোবেন। অন্যের ব্যবহৃত চিরুনি, তোয়ালে, নেইল কাটার, কাঁচি, শেভিং কিটস প্রভৃতি ব্যবহার করবেন না। প্রয়োজনীয় ওষুধ, ওরস্যালাইন, ব্যান্ডেজ, অ্যান্টিসেপ্টিক ক্রিম, চশমা সঙ্গে নিয়ে যাবেন। অসুস্থ হলে কাছাকাছি মেডিকেল ক্যাম্পে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

ডা. এ. হাসনাত শাহীন
ডায়াবেটিস ও হরমোন রোগ বিশেষজ্ঞ, বিআইএইচএস জেনারেল হাসপাতাল

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনি কি পরিচয় গোপন রাখতে চান
আমি প্রথম আলোর নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আরও সংবাদ

View Mobile Site
   
সম্পাদক ও প্রকাশক: মতিউর রহমান
সিএ ভবন, ১০০ কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫
ফোন: ৮১৮০০৭৮-৮১, ফ্যাক্স: ৯১৩০৪৯৬, ই-মেইল: info@prothom-alo.info
 
topউপরে