আইসিইউতে বিয়ে!

অনলাইন ডেস্ক | আপডেট:

ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যের পুনে শহরের একটি হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) বিয়ে হয়েছে এক দম্পতির। সেখানে চিকিৎসাধীন ছিলেন বরের মুমূর্ষু বাবা। তাঁর শেষ ইচ্ছা পূরণ করতে আইসিইউতে সংক্ষিপ্ত পরিসরে ওই বিয়ের আয়োজনের অনুমতি দেন চিকিৎ​সকেরা। এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে।

৩৪ বছর বয়সী বর ব্যবসায়ী দীনেশ এন. দেব বলেন, আইসিইউতে এ ধরনের ঘটনা সাধারণত ঘটে না। অস্বাভাবিক পরিস্থিতির কারণেই অস্বাভাবিক এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তিনি বলেন, ‘গত ১৮ ডিসেম্বর নির্ধারিত তারিখে আমার সঙ্গে কনে সুবর্ণার বিয়ে দেখে যাওয়ার তীব্র আকাঙ্ক্ষা ছিল আমার বাবা নন্দকুমার দেবের। কিন্তু ১৮ তারিখের মাত্র কয়েক দিন আগে তিনি হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হলে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।’

দেব জানান, দীননাথ মঙ্গেশকার সুপারস্পেশালিটি হসপিটালে তাঁর বাবা ৬৭ বছর বয়সী নন্দকুমারের এনজিওপ্লাস্ট করা হয়। এরপর তিনি কিছুটা সুস্থ হলে হঠাৎ তাঁর ফুসফুসে সংক্রমণ ধরা পড়ে। এরপর কৃত্রিম শ্বাসপ্রশ্বাস দিয়ে তাঁকে বাঁচিয়ে রাখা হয়। তাঁর অবস্থার দ্রুত পরিবর্তন হতে থাকে। বিয়ের নির্ধারিত দিনের কয়েক দিন আগেও হাসপাতাল থেকে তাঁর বাবার আরোগ্য লাভ বা বেঁচে থাকার বিষয়ে তেমন কোনো আশা দেওয়া হচ্ছিল না। পরে উভয় পরিবারের সদস্যরা বিষয়টি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন এবং তাঁর বাবার শেষ ইচ্ছাপূরণের সিদ্ধান্ত নেন। এরপর তাঁরা আইসিইউতে সংক্ষিপ্তভাবে বিয়ের আয়োজনের জন্য অনুমোদন নেন।

দেব আরও জানান, হাসপাতালের মেডিকেল ডিরেক্টর ধনঞ্জয় কেলকারসহ সংশ্লিষ্ট অন্য কর্মকর্তারা ১৭ ডিসেম্বর রাতে আইসিইউতে দ্রুত বিয়ে শেষ করার অনুমতি দেন। দুই পক্ষের শুধুমাত্র নিকট আত্মীয়দের ওই বিয়েতে থাকার অনুমতি দেওয়া হয়। বিয়ের সময় সেখানে তাঁর বাবার তত্ত্বাবধানে কয়েকজন চিকিৎসক ও সেবিকা উপস্থিত ছিলেন। বর-কনে দ্রুত মালা বদলসহ নীরবে বিয়ের অন্যান্য আনুষ্ঠানিকতা শেষ করেন। পরে ওই দম্পতি অসুস্থ নন্দকুমারের পা ছুঁয়ে আশীর্বাদ নেন। এরপর তাঁরা অন্য আত্মীয়দের আশীর্বাদ নেন। এর প্রায় ১২ ঘণ্টা পর ১৮ ডিসেম্বর ভোরে নন্দকুমারের মারা যান।

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনি কি পরিচয় গোপন রাখতে চান
আমি প্রথম আলোর নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
View Mobile Site
   
সম্পাদক ও প্রকাশক: মতিউর রহমান
সিএ ভবন, ১০০ কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভিনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫
ফোন: ৮১৮০০৭৮-৮১, ফ্যাক্স: ৯১৩০৪৯৬, ই-মেইল: info@prothom-alo.info
 
topউপরে