সব

ইআরডির নতুন নীতিমালা প্রকাশ

চীন ঠিকাদার ঠিক করে দিতে পারবে না

জাহাঙ্গীর শাহ
প্রিন্ট সংস্করণ

চীন থেকে ঋণ নিলেও চীনা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে দরপত্রে অংশ নিতে হবে। চীন সরকারের মনোনীত ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে আর নির্বাচিত করবে না সরকার। অন্তত চীন সরকারের দেওয়া সংক্ষিপ্ত তালিকার ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান দরপত্রে অংশ নিতে পারবে।
অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ (ইআরডি) চীনা সরকারি অর্থায়নে প্রকল্প বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে দরপত্রের নীতিমালা ও পদ্ধতি চূড়ান্ত করেছে। সেখানে এসব শর্ত দেওয়া হয়েছে। চীন থেকে অর্থ নিয়ে কোনো প্রকল্প নেওয়া হলে এত দিন চীন সরকারের মনোনীত ঠিকাদার নিয়োগ করতে হতো। এমনকি দরপত্র আহ্বানও করা হতো না। প্রকল্প বাস্তবায়নকারী সংস্থা ওই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করত। এটাই অলিখিত শর্ত। এতে চীনের ঋণে নেওয়া প্রকল্পগুলোর কেনাকাটায় সরকারি ক্রয় আইন যথাযথ অনুসরণ করা হয়নি।
এই জটিলতা নিরসনে দুই বছর ধরেই চীনা সরকারের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছিল ইআরডি। চীন এখন নতুন নীতিমালার বিষয়ে একমত পোষণ করেছে। তাই সমস্যার আপাতত সমাধান হলো। গত ৩০ নভেম্বর অনুষ্ঠিত অর্থনৈতিক বিষয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় সীমিত দরপত্রের মাধ্যমে চীনা ঠিকাদার নির্বাচনের সিদ্ধান্ত হয়। ওই সভায় আরও সিদ্ধান্ত হয়, অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠান বা অন্য বিনিয়োগ আকৃষ্ট করার লক্ষ্যে সীমিত পর্যায়ে অন্য সিদ্ধান্ত নেওয়া যেতে পারে।
এরপর ইআরডি নতুন নীতিমালা প্রণয়ন করে। নীতিমালা অনুযায়ী, চীনা সহায়তা পেতে হলে প্রকল্প বাস্তবায়নকারী মন্ত্রণালয়, বিভাগ বা সংস্থা প্রথমে প্রকল্প প্রস্তাব ইআরডিতে পাঠাবে। ইআরডি তা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে চীন সরকারকে অবহিত করবে। চীন সরকার রাজি হলে ওই দেশের সরকারই বাংলাদেশের কাছে চীনা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের একটি সংক্ষিপ্ত তালিকা সুপারিশ করবে। এরপর ইআরডি তা প্রকল্প বাস্তবায়নকারী সংস্থাকে জানিয়ে দেবে। ওই উদ্যোগী সংস্থা ওই সংক্ষিপ্ত তালিকায় থাকা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সীমিত পরিসরে দরপত্র আহ্বান করবে।
গত বছরের ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত জি টু জি (সরকার-সরকার) ভিত্তিতে যেসব প্রকল্পে চীনা ঠিকাদার নিয়োগের বিষয়টি অর্থনৈতিক বিষয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি অনুমোদন করেছে, তা নতুন নীতিমালার আওতায় থাকবে না।
এ বিষয়ে ইআরডির উপসচিব এ কে এম মতিউর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, প্রায় দুই-আড়াই বছর ধরে এ নিয়ে চীন সরকারের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। চীন সরকারের মতামতের ভিত্তিতে এই নীতিমালা চূড়ান্ত করা হয়েছে। এই নীতিমালা অনুসরণ করার জন্য ইতিমধ্যে সংশ্লিষ্ট সব মন্ত্রণালয়কে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। নীতিমালাটি অনুসরণ করলে তা ক্রয় আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক হবে না।
বর্তমান সরকারি কেনাকাটা আইনে উন্মুক্ত ও সীমিত—এ দুই ধরনের দরপত্র পদ্ধতি রয়েছে। উন্মুক্ত দরপত্র পদ্ধতিতে (ওটিএম) সরকারি ক্রয়কারী প্রতিষ্ঠান দাপ্তরিক প্রাক্কলিত মূল্য, অর্থাৎ কত টাকায় কাজ বা সেবা কিনতে আগ্রহী, তা উল্লেখ থাকে না। আর সীমিত দরপত্র পদ্ধতিতে (এলটিএম) তা উল্লেখ থাকে। এই পদ্ধতিতে কোন কোন দেশের প্রতিষ্ঠান দরপত্রে অংশ নিতে পারবে, তা-ও উল্লেখ থাকে। আইনের ৬৮ নম্বর ধারা অনুযায়ী, রাষ্ট্রীয় জরুরি প্রয়োজনে কিংবা বিপর্যয়কর কোনো পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে আইনে উল্লেখিত দরপত্র পদ্ধতির বাইরে সরাসরি বা অন্য কোনো উপায়ে কেনাকাটা করতে পারবে সরকার।
এ বিষয়ে বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের (পিআরআই) নির্বাহী পরিচালক আহসান এইচ মনসুর প্রথম আলোকে বলেন, ‘এত দিন চীন সরকার ঠিকাদার ঠিক করে দিত। এখন সীমিত পরিসরে প্রতিযোগিতা হবে। এটা মন্দের ভালো। অন্তত তিন-চারটি প্রতিষ্ঠান দরপত্রে অংশ নেবে। তিনি আরও বলেন, সবচেয়ে ভালো হতো, চীন সরকার যদি ঠিকাদারদের সংক্ষিপ্ত তালিকা তৈরি করে বিষয়টি বাংলাদেশ সরকারের ওপর ছেড়ে দিত। এতে আরও প্রতিযোগিতা বাড়ত। আমরাও সাশ্রয়ী মূল্যে ভালো কাজ পেতাম।’
উল্লেখ্য, বর্তমানে বেশ কিছু প্রকল্প চীনা ঋণে বাস্তবায়িত হচ্ছে। এর মধ্যে অন্যতম হলো কর্ণফুলী নদীর তলদেশ দিয়ে টানেল নির্মাণ। এই প্রকল্পে প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজার কোটি টাকা দিচ্ছে চীন সরকার। অন্য প্রকল্পগুলোর উল্লেখযোগ্য হলো ইন্ট্রুডাকশন অব থ্রি জি, শাহজালাল সার কারখানা নির্মাণ, পদ্মা ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট, ইনফো সরকার, দাশেরকান্দি পয়োশোধনাগার এবং ফোর টায়ার জাতীয় ডেটা সেন্টার। সব মিলিয়ে এসব প্রকল্পে চীন সরকার বাংলাদেশকে এখন পর্যন্ত প্রায় ১৭ হাজার কোটি টাকা দিচ্ছে। কয়েক মাস আগে চীনা প্রেসিডেন্ট শি চিং পিং বাংলাদেশ সফরকালে প্রায় ২৪ বিলিয়ন ডলার দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

default image

মার্চ মাসে কনটেইনার পরিবহনে রেকর্ড

রোজার পণ্যের আমদানি বেড়েছে

রোজার পণ্যের আমদানি বেড়েছে

default image

নতুন জেটি না হলে প্রবৃদ্ধি কমতে পারে

default image

ডেনমার্কের ব্যবসায়ীরা টেকসই উৎপাদনে ভূমিকা রাখতে চান

মন্তব্য ( ১ )

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
1 2 3 4
 
আরও মন্তব্য

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

এফবিসিসিআই নির্বাচনে প্রার্থী শমী কায়সার

এফবিসিসিআই নির্বাচনে প্রার্থী শমী কায়সার

ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের ২০১৭-১৯ মেয়াদের নির্বাচনে পরিচালক পদে...
কোনো ব্যাংকেই যথাযথ প্রক্রিয়া মেনে নিয়োগ হয়নি: ইব্রাহিম খালেদ

কোনো ব্যাংকেই যথাযথ প্রক্রিয়া মেনে নিয়োগ হয়নি: ইব্রাহিম খালেদ

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ বলেন,...
৪ হাজার টাকায় কক্সবাজার ভ্রমণ

৪ হাজার টাকায় কক্সবাজার ভ্রমণ

ঢাকা থেকে কক্সবাজার ভ্রমণে বিশেষ অফার ঘোষণা দিয়েছে দেশের অন্যতম বেসরকারি...
কেনাকাটা কমিয়ে দিয়েছেন মার্কিনরা!

কেনাকাটা কমিয়ে দিয়েছেন মার্কিনরা!

প্রতিষ্ঠানগুলোতে দক্ষ শ্রমিক নিয়োগে মার্কিনদের অগ্রাধিকার দেওয়ার তাগিদ দিয়ে...
১১ মে পবিত্র শবে বরাত

১১ মে পবিত্র শবে বরাত

আগামী ১১ মে (বৃহস্পতিবার) দিবাগত রাতে সারা দেশে পবিত্র লাইলাতুল বরাত পালিত...
তিস্তার জল দিতে পারব না বাংলাদেশকে

তিস্তার জল দিতে পারব না বাংলাদেশকে

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তিস্তার পানি বণ্টনের ক্ষেত্রে...
এক নারীকে স্ত্রী দাবি দুই ব্যক্তির!

এক নারীকে স্ত্রী দাবি দুই ব্যক্তির!

পটুয়াখালীর বাউফলে এক নারীকে (২২) দুই ব্যক্তি স্ত্রী হিসেবে দাবি করছেন। এ নিয়ে...
লবণ কম খেলেই রক্তচাপ কমে না

নতুন গবেষণার ফল লবণ কম খেলেই রক্তচাপ কমে না

সবার মধ্যে সাধারণ একটি ধারণা হলো, লবণ কম খেলে রক্তচাপ কমে। সাম্প্রতিক এক...
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
© স্বত্ব প্রথম আলো ১৯৯৮ - ২০১৭
সম্পাদক ও প্রকাশক: মতিউর রহমান
সিএ ভবন, ১০০ কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভেনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা ১২১৫
ফোন: ৮১৮০০৭৮-৮১, ফ্যাক্স: ৯১৩০৪৯৬, ইমেইল: info@prothom-alo.info