সব

বাজারে দ্বিতীয় দিনের মতো বড় দরপতন

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট সংস্করণ

শেয়ারবাজারআগের দিনের ধারাবাহিকতায় দেশের শেয়ারবাজারে গতকাল সোমবারও বড় ধরনের দরপতন ঘটেছে। তবে পতনের তীব্রতা আগের দিনের চেয়ে কিছুটা কম ছিল। দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স গতকাল দিন শেষে ৮০ বা প্রায় দেড় শতাংশ কমেছে। আগের দিন এই সূচকটি ১১৮ পয়েন্ট বা ২ শতাংশের বেশি কমেছিল।
অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচকটি সোমবার ২০২ পয়েন্ট বা প্রায় সোয়া ১ শতাংশ কমেছে। সিএসইর এই সূচকটি রোববার এক দিনে ৪১১ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ৩৬ শতাংশ কমেছিল। তবে লেনদেনে দুই বাজারে ছিল দুই রকম অবস্থা। ডিএসইতে লেনদেন কমলেও বেড়েছে চট্টগ্রামের বাজারে।
বাজারসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, রোববার ঘোষিত মুদ্রানীতির প্রভাবেই মূলত বাজারে বড় ধরনের দরপতন দেখা দিয়েছে। মুদ্রানীতির তাৎক্ষণিক প্রভাবে রোববারই বড় দরপতন ঘটেছিল। মুদ্রানীতি ঘোষণাকালে গভর্নর ফজলে কবির শেয়ারবাজার বিষয়ে সতর্কবার্তা দেন। এ সময় তিনি শেয়ারবাজারে ব্যাংকগুলোর বিনিয়োগের ওপর নজরদারি বাড়ানোর কথাও বলেন। স্মরণ করিয়ে দেন ২০১০ সালের শেয়ারবাজার ধসের কথাও। তিনি বলেন, শেয়ারবাজার সুস্থ ধারায় না থাকলে আবারও ক্ষতিগ্রস্ত হবেন ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীরা।
শেয়ারবাজারের সাম্প্রতিক দরপতনের বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষক মোহাম্মদ হেলাল প্রথম আলোকে বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে বাজার যেভাবে তেজি হয়ে উঠেছিল, সেটির লাগাম টানতে একধরনের কৌশল নেওয়া হয়েছে। যাতে করে বাজারের উত্থান নিয়ন্ত্রক সংস্থার নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে না যায়।
মোহাম্মদ হেলাল আরও বলেন, শেয়ারবাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগ ও ঋণের টাকা শেয়ারবাজারে ঢুকছে কি না, তা খতিয়ে দেখতে নজরদারি বাড়ানোর বিষয়টি বাংলাদেশ ব্যাংকের রুটিন কাজেরই অংশ। তবে সেটিকে গভর্নর প্রকাশ্যে বলায় বিনিয়োগকারীদের মধ্যে কিছুটা আতঙ্ক ভর করেছে। যদিও এ ধরনের আতঙ্কের যৌক্তিক ভিত্তি নেই।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এ শিক্ষক মনে করেন, দরপতনের এ ধারা স্থায়ী হবে না। এর কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘সাম্প্রতিক সময়ে সরকারের বিভিন্ন পর্যায় থেকে শেয়ারবাজারের উন্নয়নে যেসব পদক্ষেপ গ্রহণ ও বক্তব্য এসেছে, তাতে মনে হয় না এ পর্যায়ে এসে বাজারে একটানা দরপতন কারও কাম্য। বরং সরকারের পক্ষ থেকে চেষ্টা রয়েছে বাজারটি সুস্থ ধারায় ফিরিয়ে আনা। তাই বাজারে তেজিভাব অস্বাভাবিক হলে সেটিকে নিয়ন্ত্রণের কিছুটা চেষ্টা করা হয়। এতে বিনিয়োগকারীর ভীত হওয়ার কোনো কারণ আছে বলে আপাতত আমার মনে হয় না।’
ঢাকার বাজারে গতকাল লেনদেনের শুরু থেকে প্রথম দুই ঘণ্টা সূচকের বেশ ওঠা-নামা ছিল। বেলা একটার পর থেকে সূচক ক্রমেই কমতে শুরু করে। ফলে দিন শেষে ডিএসইর প্রধান সূচকটি কমে নেমে আসে ৫ হাজার ৪২১ পয়েন্টে।
মার্চেন্ট ব্যাংক আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্টসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গতকালের সূচকের পতনের পেছনে বড় ভূমিকা ছিল ব্যাংক খাতের। এ খাতের তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর শেয়ারের সর্বোচ্চ দরপতন হয়েছে। এদিন গড়ে প্রতিটি ব্যাংকের শেয়ারের দাম ২ দশমিক ৮ শতাংশ করে কমেছে। খাত হিসেবে সর্বোচ্চ দরপতন হলেও লেনদেনে আধিপত্য ছিল ব্যাংক খাতেরই। ডিএসইর মোট লেনদেনের ১৮ শতাংশের বেশি ছিল এ খাতের।
ডিএসইতে গতকাল দিন শেষে লেনদেনের পরিমাণ ছিল প্রায় ১ হাজার ৭৫ কোটি টাকা, যা আগের দিনের চেয়ে ৬২ কোটি টাকা বা সাড়ে ৫ শতাংশ কম। এদিন ঢাকার বাজারে লেনদেন ও দর বৃদ্ধির শীর্ষে ছিল বিদ্যুৎ খাতের কোম্পানি বারাকা পাওয়ার। এককভাবে কোম্পানিটির ৪৮ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। প্রতিটি শেয়ারের দাম ৩ টাকা ৬০ পয়সা বা সাড়ে ৮ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৬ টাকায়। রোববার ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে ছিল বেক্সিমকো। গতকাল সেটি নেমে গেছে চতুর্থ অবস্থানে।
চট্টগ্রামের বাজারের সার্বিক মূল্যসূচকটি গতকাল দিন শেষে কমে দাঁড়িয়েছে ১৬ হাজার ৭৮৫ পয়েন্টে। আর লেনদেনের পরিমাণ ছিল প্রায় ৭২ কোটি টাকা, যা আগের দিনের চেয়ে ৪ কোটি টাকা বেশি।

দ্রুত লাভ দেখাতে না পারলে প্রশ্ন উঠবে

দ্রুত লাভ দেখাতে না পারলে প্রশ্ন উঠবে

default image

বৈশ্বিক শেয়ারবাজারে পতন, কমেছে মার্কিন ডলারের দামও

মূল্য সংশোধনের প্রভাব লেনদেনে

মূল্য সংশোধনের প্রভাব লেনদেনে

মন্তব্য ( ১ )

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
1 2 3 4
 
আরও মন্তব্য

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

ইপিজেডে শ্রম আইনের বাস্তবায়ন চায় ইইউ

আইএলও, পোশাকশিল্পের মালিক ও শ্রমিকনেতাদের সঙ্গে ইইউ পালার্মেন্টের প্রতিনিধিদলের বৈঠক ইপিজেডে শ্রম আইনের বাস্তবায়ন চায় ইইউ

দেশের রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকায় (ইপিজেড) কর্মরত শ্রমিকদের ট্রেড ইউনিয়নের...
default image

মুঠোফোনভিত্তিক আর্থিক সেবা এক মাসে সক্রিয় হিসাব বেড়েছে ৭৪ লাখ

চলতি বছরের জানুয়ারির চেয়ে ফেব্রুয়ারিতে মুঠোফোনভিত্তিক আর্থিক সেবায় (এমএফএস)...
পুড়ে ছাই বিভাগের একাংশ

বাংলাদেশ ব্যাংকে আগুন পুড়ে ছাই বিভাগের একাংশ

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে লাগা আগুনে ভস্মীভূত হয়েছে ১৪ তলার বৈদেশিক...
default image

কর্মশালায় শ্রমসচিব উৎপাদনশীলতা বাড়াতে জোর দেওয়া হয়েছে

সরকার শিল্পকারখানায় উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির পাশাপাশি উৎপাদিত পণ্যের গুণগত...
বাগেরহাটে ট্রলারডুবি, ৩ মরদেহ উদ্ধার

বাগেরহাটে ট্রলারডুবি, ৩ মরদেহ উদ্ধার

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জের পানগুছি নদীতে আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে ট্রলারডুবির...
ভুয়া প্রশ্নপত্র বিক্রি: অধ্যক্ষসহ গ্রেপ্তার ৯

ভুয়া প্রশ্নপত্র বিক্রি: অধ্যক্ষসহ গ্রেপ্তার ৯

পাবলিক পরীক্ষার ভুয়া প্রশ্নপত্র বিক্রির সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে এক অধ্যক্ষসহ...
বাংলাদেশের অগ্রযাত্রায় পাশে থাকবে যুক্তরাজ্য

স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে ব্রিটিশ এমপিরা বাংলাদেশের অগ্রযাত্রায় পাশে থাকবে যুক্তরাজ্য

বাংলাদেশের উন্নয়ন-অগ্রযাত্রায় সব সময় পাশে থাকবে যুক্তরাজ্য। বাংলাদেশের...
বাংলাদেশকে ঠেকাতে সবুজ উইকেট!

বাংলাদেশকে ঠেকাতে সবুজ উইকেট!

জয়ের সমন্বয়টা ভাঙতে নেই। ক্রিকেটের পৃথিবীতে খুব প্রচলিত কথা, জনপ্রিয়ও।...
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
© স্বত্ব প্রথম আলো ১৯৯৮ - ২০১৭
সম্পাদক ও প্রকাশক: মতিউর রহমান
সিএ ভবন, ১০০ কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভেনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা ১২১৫
ফোন: ৮১৮০০৭৮-৮১, ফ্যাক্স: ৯১৩০৪৯৬, ইমেইল: info@prothom-alo.info