সব

শেয়ারবাজার

আড়াই মাসে ৪৩ হাজার নতুন বিও

সুজয় মহাজন
প্রিন্ট সংস্করণ

অনেক ভেবেচিন্তে তবেই বিনিয়োগ করতে হবে শেয়ারবাজারে l ফাইল ছবিগত বছরের ১৫ নভেম্বর থেকে গতকাল ২৫ জানুয়ারি। প্রায় আড়াই মাস বা ৫০ কার্যদিবসের ব্যবধানে শেয়ারবাজারে বিও (বেনিফিশিয়ারি ওনার্স) হিসাব বেড়েছে প্রায় ৪৩ হাজার। অর্থাৎ এই সময়ে নতুন করে ৪৩ হাজার লোক শেয়ারবাজারের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন। বিও হিসাব সংরক্ষণকারী প্রতিষ্ঠান সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি বাংলাদেশ লিমিটেড (সিডিবিএল) সূত্রে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

সিডিবিএলের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৬ সালের ১৫ নভেম্বর শেয়ারবাজারে বিও হিসাবের সংখ্যা ছিল ২৯ লাখ ৭ হাজার ৫৮২টি। গতকাল দিন শেষে সেই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৯ লাখ ৫০ হাজার ৬১৮টিতে। অর্থাৎ এ সময়ের মধ্যে নতুন করে ৪৩ হাজার ৩৬টি নতুন বিও হিসাব খোলা হয়েছে। এই সময়ে উল্লেখ করার মতো ভালো কোম্পানির কোনো প্রাথমিক গণপ্রস্তাব বা আইপিও বাজারে আসেনি। সংশ্লিষ্টদের মতে, বাজারের ঊর্ধ্বগতির কারণে নতুন করে অনেকে এসব হিসাব খুলেছেন।

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গত ১৫ নভেম্বর থেকে ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত ৫০ কার্যদিবস লেনদেন হয়েছে। সেই হিসাবে প্রতিদিন গড়ে ৮৬১টি করে নতুন বিও হিসাব খোলা হয়েছে।

উল্লিখিত সময়ের মধ্যে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৯৫৬ পয়েন্ট বেড়েছে। ১৫ নভেম্বর ডিএসইএক্স ছিল ৪ হাজার ৬৬৫ পয়েন্টের অবস্থানে। গতকাল দিন শেষে তা দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৬২১ পয়েন্টে। এ সময়ে লেনদেনের পরিমাণও হাজার কোটি টাকার বেশি বেড়েছে। ১৫ নভেম্বর ডিএসইতে লেনদেনের পরিমাণ ছিল ৬৪৭ কোটি টাকা। গত কয়েক দিনে সেই লেনদেনের পরিমাণ বেড়ে ২ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়েছে। তবে মূল্য সংশোধনের কারণে গতকাল দিন শেষে লেনদেনের পরিমাণ কিছুটা কমে দেড় হাজার কোটির ঘরে নেমেছে।

এদিকে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) সূত্রে জানা গেছে, সেকেন্ডারি বাজারে বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণ তিন গুণেরও বেশি বেড়েছে। নভেম্বরের আগে সেকেন্ডারি বাজারে প্রতিদিন গড়ে ২০ থেকে ২৫ হাজারের মতো বিও হিসাব থেকে শেয়ারের কেনাবেচা হয়েছিল। এখন তা বেড়ে ৭৫ থেকে ৮০ হাজারে পৌঁছেছে। অর্থাৎ সেকেন্ডারি বাজারে বর্তমানে প্রতিদিন গড়ে ৭৫ হাজারের বেশি বিও হিসাব থেকে শেয়ার কেনাবেচা হচ্ছে।

বাজারসংশ্লিষ্ট একাধিক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, নতুন করে যাঁরা যুক্ত হচ্ছেন তাঁরা উল্লেখযোগ্য পরিমাণ অর্থ নিয়ে বাজারে প্রবেশ করছেন। দেশের প্রতিষ্ঠিত অনেক শিল্পপতিও এখন শেয়ারবাজারে অর্থ লগ্নি করছেন বলেও জানা গেছে। পুরোনো নিষ্ক্রিয় বিনিয়োগকারীদের অনেকে আবারও সক্রিয় হয়ে উঠেছেন।

বাজারের এ তেজিভাবে কিছুটা নড়েচড়ে বসেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থাও। বাজারের একটানা উত্থান তাদের কিছুটা দুশ্চিন্তাগ্রস্তও করে তুলেছে। এ কারণে গত কয়েক দিনে বাজারসংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তার সঙ্গে বৈঠক করে আইনকানুন মেনে চলার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

জানতে চাইলে বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র সাইফুর রহমান বলেন, ‘বাজারের একটানা উত্থান আবার একটানা মন্দাভাব কোনোটাই আমাদের কাম্য নয়। আমরা একটি টেকসই বাজার চাই। যেখানে উত্থান-পতনের স্বাভাবিক একটা ধারা থাকবে।’

বাজারের বর্তমান অবস্থায় বিএসইসির নেওয়া পদক্ষেপ বিষয়ে জানতে চাইলে সাইফুর রহমান বলেন, প্রান্তিক ঋণ বা মার্জিন লোনের আইনি সীমাসহ আরও কিছু আইনকানুন যথাযথভাবে মেনে চলতে সংশ্লিষ্ট সবাইকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। অন্য যেকোনো সময়ের চেয়ে তদারকি ব্যবস্থাও জোরদার করা হয়েছে।

এদিকে, গতকাল বাজারে বড় ধরনের মূল্য সংশোধন হয়েছে। এটিকে বাজারের জন্য মঙ্গলজনক বলে অভিহিত করেছেন সংশ্লিষ্টরা। এদিন ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স প্রায় ৮৭ পয়েন্ট বা দেড় শতাংশ কমে নেমে এসেছে ৫ হাজার ৬২১ পয়েন্টে। দিন শেষে লেনদেনের পরিমাণ ছিল ১ হাজার ৫২৫ কোটি টাকা, যা আগের দিনের চেয়ে ৪৮৮ কোটি টাকা কম।

মার্চেন্ট ব্যাংক আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্টসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত কয়েক দিনের উত্থানের পর ব্যাংক খাতের শেয়ারে গতকাল বড় ধরনের মূল্য সংশোধন হয়েছে। এ দিন ডিএসইতে তালিকাভুক্ত ব্যাংকের শেয়ারের দাম গড়ে ৩ শতাংশ করে কমেছে। যার বড় প্রভাব পড়েছে সূচকেও। তালিকাভুক্ত ৩০টি ব্যাংকের মধ্যে ২৮টিরই দাম কমেছে। তবে লেনদেনে আধিপত্য ছিল এ খাতের। ডিএসইর গতকালের মোট লেনদেনের ২৫ শতাংশই ছিল এ খাতের।

চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচকটি ২৮০ পয়েন্ট বা প্রায় দেড় শতাংশ কমে নেমে এসেছে ১৭ হাজার ৪২৭ পয়েন্টে। এই বাজারে গতকাল দিন শেষে লেনদেনের পরিমাণ ছিল ৮৪ কোটি টাকা, যা আগের দিনের চেয়ে ৩৬ কোটি টাকা কম।

 

রমজানে ডিএসইতে লেনদেন ১০টা থেকে ২টা

রমজানে ডিএসইতে লেনদেন ১০টা থেকে ২টা

সূচকের নিম্নমুখী প্রবণতা অব্যাহত

সূচকের নিম্নমুখী প্রবণতা অব্যাহত

দরপতনের বাজারে ছোট কোম্পানির দাপট

দরপতনের বাজারে ছোট কোম্পানির দাপট

সূচকের নিম্নমুখী প্রবণতা অব্যাহত

সূচকের নিম্নমুখী প্রবণতা অব্যাহত

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
1 2 3 4
 
আরও মন্তব্য

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

ওইমেক্স ইলেকট্রোডের আইপিও অনুমোদন

এক ব্রোকারেজ হাউসকে ৩০ লাখ টাকা জরিমানা ওইমেক্স ইলেকট্রোডের আইপিও অনুমোদন

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হতে যাচ্ছে ওইমেক্স ইলেকট্রোড নামের একটি কোম্পানি।...
সূচকের কিছুটা ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা

সূচকের কিছুটা ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা

সূচকের কিছুটা ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা রয়েছে আজ সোমবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে ও...
সূচকের মিশ্র প্রবণতা পুঁজিবাজারে

সূচকের মিশ্র প্রবণতা পুঁজিবাজারে

দুদিন পর সূচকের কিছুটা ওঠা নামা রয়েছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই)। সূচকের...
সিএসইর দুই ব্রোকারেজ হাউসের কার্যক্রম স্থগিত

সূচক বাড়লেও দুই বাজারেই লেনদেন কমেছে সিএসইর দুই ব্রোকারেজ হাউসের কার্যক্রম স্থগিত

চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সদস্যভুক্ত দুই ট্রেকহোল্ডার...
ইংরেজি মাধ্যমে সেশন ফির নামে অর্থ আদায় বেআইনি

ইংরেজি মাধ্যমে সেশন ফির নামে অর্থ আদায় বেআইনি

দেশের ইংরেজি মাধ্যমের কোনো শিক্ষার্থী এক শ্রেণি থেকে অন্য শ্রেণিতে উত্তীর্ণ...
গোপালগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় পুলিশসহ নিহত ৬

গোপালগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় পুলিশসহ নিহত ৬

গোপালগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় পুলিশের সহকারী উপপরিদর্শকসহ (এএসআই) ছয়জন নিহত...
চীনা বিশ্বায়নে ভারসাম্যের চ্যালেঞ্জে বাংলাদেশ

চীনের ‘বেল্ট অ্যান্ড রোড’: বাংলাদেশের উন্নয়নের সন্ধিক্ষণ ২ চীনা বিশ্বায়নে ভারসাম্যের চ্যালেঞ্জে বাংলাদেশ

বেল্ট অ্যান্ড রোড (বিআরআই) ফোরামের শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দেওয়া ২৯ জন...
‘ভারতের মতো অত প্রতিভা নেই বাংলাদেশে’

‘ভারতের মতো অত প্রতিভা নেই বাংলাদেশে’

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) পঞ্চম পর্ব শুরু হচ্ছে আগামী ৪ নভেম্বর,...
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
© স্বত্ব প্রথম আলো ১৯৯৮ - ২০১৭
সম্পাদক ও প্রকাশক: মতিউর রহমান
সিএ ভবন, ১০০ কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভেনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা ১২১৫
ফোন: ৮১৮০০৭৮-৮১, ফ্যাক্স: ৯১৩০৪৯৬, ইমেইল: info@prothom-alo.info