সব

বিজয়ের ক্ষণে সবার কণ্ঠে জাতীয় সংগীত

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

বিজয়ের ক্ষণ ঘনিয়ে আসছে। রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের প্রবেশপথে তখনো মানুষের সারি। একজন একজন করে ঢুকতে হচ্ছে। অনেকেই তাই বেছে নিলেন দেয়াল টপকানোর পথ। উদ্দেশ্য কোটি কণ্ঠে জাতীয় সংগীতে শামিল হওয়া।

১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী আত্মসমর্পণ করেছিল বিকেল ৪টা ৩১ মিনিটে। আজ বুধবার সেই বিকেল ৪টা ৩১মিনিটে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের দক্ষিণ পাশে ‘কোটি কণ্ঠে জাতীয় সংগীতের’ আয়োজনে সবাই গাইলেন ‘আমার সোনার বাংলা, আমি তোমায় ভালোবাসি।’ এই আয়োজনে যোগ দেন সর্বস্তরের মানুষ। বিজয় দিবস উদ্‌যাপন জাতীয় কমিটির এই আয়োজনে একই সময়ে দেশের জেলা-উপজেলা, ইউনিয়ন-গ্রামসহ সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এবং সারা বিশ্বে ছড়িয়ে থাকা বাংলাদেশিদের এ কর্মসূচিতে অংশ নেওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছিল। এই আয়োজনের নাম দেওয়া হয়, ‘কোটি কণ্ঠে জাতীয় সংগীত’।
এর আগে জাতীয় কমিটির উদ্যোগে বেলা ১১টায় ‘বিজয় উৎসব’ উদ্বোধন করেন সাবেক প্রধান বিচারপতি এ বি এম খায়রুল হক। তিনি একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় হত্যা, গণহত্যা, ধর্ষণের মতো মানবতাবিরোধী অপরাধে জড়িত পাকিস্তানি সেনাসদস্যদের বিচারের দাবি করেন। উদ্বোধনের পর থেকে বিকেল পর্যন্ত চলে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ‘আমাদের সংস্কৃতি’।
বিকেল সাড়ে তিনটায় ছিল জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন পর্ব। জাতীয় সংগীতের পর হয় ‘আগামী বাংলাদেশের শপথ’। শপথবাক্য পড়ান বিজয় দিবস উদ্‌যাপন জাতীয় কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক আবুল বারকাত। এ সময় মুক্তিযুদ্ধের আদর্শকে সমুন্নত রাখা, শহীদ ও বীরাঙ্গনাদের আত্মদানকে ব্যর্থ হতে না দেওয়া, হারানো মূল্যবোধ পুনরুদ্ধার, দেশকে জঙ্গিবাদ, মৌলবাদ ও সাম্প্রদায়িকতাসহ সব ধরনের জাতিগত বৈষম্য দূর করার লড়াই চালিয়ে যাওয়া, আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদের আগ্রাসনের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাওয়া ও মারণাস্ত্র মুক্ত বিশ্ব গড়ার শপথ নেওয়া হয়।
পরে স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পীদের কণ্ঠে পরিবেশিত হয় মুক্তিযুদ্ধের গান। সন্ধ্যায় আতশ বাজির খেলায় ‘বিজয় সন্ধ্যা’ উদ্‌যাপন করা হয়। রাতে হয় ‘কনসার্ট ফর ফ্রিডম’।

তাসের ঘরের মতো ধসে পড়ে ভবনটি

তাসের ঘরের মতো ধসে পড়ে ভবনটি

সুমাইয়াকে কি আর পাওয়া যাবে না?

সুমাইয়াকে কি আর পাওয়া যাবে না?

দুই মামলারই সাক্ষ্য থেমে আছে

দুই মামলারই সাক্ষ্য থেমে আছে

default image

নারীদের মধ্যে তামাক ও মাদক সেবন বাড়ছে

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
1 2 3 4
 
আরও মন্তব্য

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

default image

বিআইডিএসের আলোচনায় রাশেদা কে চৌধূরী শিক্ষা এখন রাজনীতির অংশ

গণসাক্ষরতা অভিযানের নির্বাহী পরিচালক রাশেদা কে চৌধূরী বলেন, শিক্ষা এখন...
মাঠ নেই, আছে মাদকের সমস্যা

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন: ওয়ার্ড নম্বর ১৮ মাঠ নেই, আছে মাদকের সমস্যা

সামান্য বৃষ্টিতেই পানি জমে যেত খানাখন্দে ভরা অনেক সড়কে। ফুটপাতে ছিল অবৈধ...
বর্জ্যে ভরছে নদ

বর্জ্যে ভরছে নদ

আবদুল্লাহপুর বাসস্ট্যান্ডের পাশে তুরাগ নদে ফেলা হচ্ছে ময়লা-আবর্জনা। এতে ভরাট...
default image

ইনস্টিটিউট অব লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি হাজারীবাগের ট্যানারি বন্ধের প্রভাব পড়বে না

বালতিতে কাঁচা চামড়া নিয়ে ঘোরাঘুরি করছেন শিক্ষার্থীরা। ট্যানারিতে গিয়ে এই...
তাসের ঘরের মতো ধসে পড়ে ভবনটি

তাসের ঘরের মতো ধসে পড়ে ভবনটি

ভবনে আগের দিনই ফাটল দেখা যায়। এ কারণে পোশাক কারখানার শ্রমিকদের ছুটি দেওয়া হয়।...
‘আইপি লগ’ কমপক্ষে এক বছর সংরক্ষণে বিটিআরসির নির্দেশ

সাইবার অপরাধ ‘আইপি লগ’ কমপক্ষে এক বছর সংরক্ষণে বিটিআরসির নির্দেশ

দেশের সব ইন্টারনেট সেবাদানকারী (আইএসপি) প্রতিষ্ঠানকে ‘আইপি লগ’ কমপক্ষে এক বছর...
বার্নাব্যুর মঞ্চ দখল করে নিলেন মেসি

বার্নাব্যুর মঞ্চ দখল করে নিলেন মেসি

লিগ টেবিলের সুবিধাজনক জায়গায় দাঁড়িয়েই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনার বিপক্ষে...
দুই মামলারই সাক্ষ্য থেমে আছে

রানা প্লাজা ধসের ৪বছর দুই মামলারই সাক্ষ্য থেমে আছে

বিশ্বের সবচেয়ে বড় শিল্পভবন দুর্ঘটনায় ১ হাজার ১৩৬ জন শ্রমিকের মৃত্যুর বিচার...
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
© স্বত্ব প্রথম আলো ১৯৯৮ - ২০১৭
সম্পাদক ও প্রকাশক: মতিউর রহমান
সিএ ভবন, ১০০ কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভেনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা ১২১৫
ফোন: ৮১৮০০৭৮-৮১, ফ্যাক্স: ৯১৩০৪৯৬, ইমেইল: info@prothom-alo.info