সব

‘দাবি বাস্তবায়ন হলে ৩০০ টাকায় গরুর মাংস’

নিজস্ব প্রতিবেদক
video

দাবিদাওয়া বাস্তবায়ন করা হলে ৩০০ টাকায় গরুর মাংস খাওয়ানো যাবে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ মাংস ব্যবসায়ী সমিতির মহাসচিব রবিউল আলম। তিনি বলেন, ‘ভারতীয় গরু আমদানির ব্যবস্থা ঠিক করা হলে ৩০০ টাকা কেন আরও কম দামেও মাংস আমরা শহরবাসীকে খাওয়াইতে পারব।’

আজ শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় এক সংবাদ সম্মেলন শেষে তিনি এ কথা বলেন। বাংলাদেশ মাংস ব্যবসায়ী সমিতি ও ঢাকা মেট্রোপলিটন মাংস ব্যবসায়ী সমিতির যৌথ উদ্যোগে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

রবিউল আলম প্রথম আলোকে বলেন, তাঁদের দাবিদাওয়া মেনে না নেওয়া হলে সারা দেশে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট ডাকা হবে। মানা হলে ধর্মঘটের আর কোনো প্রয়োজন নেই। তিনি আশা করছেন ধর্মঘট আর লাগবে না।

রবিউল আলম বলেন, দাবি মানা এক জিনিস আর বাস্তবায়ন করা আরেক জিনিস। বাস্তবায়ন যদি করে তো একটু সময় লাগবে। যদি গরু আমদানি ওইভাবে বাস্তবায়ন করে আনা হয় তাহলে ৩০০ টাকার কমেও মাংস খাওয়ানো সম্ভব।


চার দফা দাবিতে টানা ছয় দিনব্যাপী ধর্মঘটের ডাক দেয় বাংলাদেশ মাংস ব্যবসায়ী সমিতি ও ঢাকা মেট্রোপলিটন মাংস ব্যবসায়ী সমিতি। গত সোমবার থেকে শুরু হওয়া এই ধর্মঘট আগামীকাল শনিবার শেষ হবে। এই চার দফা দাবি হলো অতিরিক্ত খাজনা আদায়ের জন্য গাবতলী হাটে ইজারাদারদের ইজারা বাতিল করাসহ হুন্ডির মাধ্যমে গরু ব্যবসার নামে ভারতে গরু পাচার বন্ধ করা ও হুন্ডি ব্যবসায়ী ‘কালা মইজা’কে বিচারের আওতায় আনা, হাজারিবাগের ট্যানারিগুলো দ্রুত অপসারণ ও চামড়ার পড়তি দাম বাড়ানো, উত্তর সিটি করপোরেশনের ‘দুর্নীতিগ্রস্ত’ প্রধান নির্বাহী ও প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তাদের অপসারণ ও আইনের আওতায় আনা এবং ট্যানারি শিল্প মালিকদের দুই ভাগে ভাগ করে সফল ব্যবসায়ীদের সহযোগিতা এবং ব্যর্থ মালিকদের কারখানা বন্ধ করা।


রোববার তো পশু জবাই বন্ধ থাকে। সেদিনও পশু জবাই হবে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে রবিউল আলম বলেন, ‘তা জানি না। আমাদের শনিবার পর্যন্ত ধর্মঘট ছিল, তা পালন করেছি। শনিবারের পর থেকে আমাদের ধর্মঘট স্থগিত থাকবে, প্রত্যাহার হবে না। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় আর ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মিটিং আছে রোববারে। রোববারে শহরে গরু জবাই হবে।’

ট্যানারি মালিকদের ‘সিন্ডিকেটের কারণে’ চামড়ার দাম কমে যাচ্ছে দাবি করে রবিউল আলম বলেন, গরুর চামড়া এক সময় চার থেকে পাঁচ হাজার টাকায় বিক্রি করা যেত। সেই চামড়া এখন ২ থেকে ৬ শত টাকায় বিক্রি করতে হয়। ছাগলের চামড়া একসময় ৫০০ থেকে ৬০০ টাকায় বিক্রি করা হতো। তা এখন ২০ থেকে ৩০ টাকায় বিক্রি করতে হচ্ছে।

সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা মেট্রোপলিটন মাংস ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি শেখ মো. আবদুল বারেক, বাংলাদেশ মাংস ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি গোলাম মোর্তুজা, ঢাকা মেট্রোপলিটন মাংস ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন:
খাজনা নিয়ে ইজারাদার ও মাংস ব্যবসায়ীদের দ্বন্দ্ব

default image

উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট

default image

দুর্নীতিকে ‘না’

default image

এজেন্ট ব্যাংকিং কার্যক্রম শুরু

default image

সনদ বিতরণ

মন্তব্য ( ১৬ )

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
1 2 3 4
 
আরও মন্তব্য

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

default image

জেলেদের চাল বিক্রি করে দেওয়ার অভিযোগ

ভোলার সদর উপজেলার পূর্ব ইলিশা ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) অনেক জেলে সরকারি সহায়তার...
default image

ঘর থেকে নবদম্পতির লাশ উদ্ধার

বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলা থেকে নবদম্পতির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মৃত্যুর...
default image

ইমারত শ্রমিক ইউনিয়নের উদ্বোধন

মেহেরপুরের গাংনী উপজেলা ইমারত নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়নের উদ্বোধন হয়েছে। গতকাল...
default image

ছাত্র পরিষদ নির্বাচনেও জাল ভোট

পটুয়াখালীর বাউফলে মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও দাখিল মাদ্রাসায় ছাত্র পরিষদ নির্বাচনে...
কুমিল্লায় বিএনপি প্রার্থী মনিরুল জয়ী

কুমিল্লায় বিএনপি প্রার্থী মনিরুল জয়ী

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ১১ হাজারের বেশি ভোটের ব্যবধানে জয়ী হয়েছেন...
কুমিল্লায় ভোট শেষ, কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা

কুমিল্লায় ভোট শেষ, কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা

বিচ্ছিন্ন ঘটনার মধ্য দিয়ে শেষ হলো কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচন। বেশ কয়েকটি...
‘আল্লাহর কাছে বিচার’ চাইলেন দুই প্রার্থী

‘আল্লাহর কাছে বিচার’ চাইলেন দুই প্রার্থী

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোট চলাকালে দুই কেন্দ্রে প্রকাশ্যে ব্যালট...
এক ঘণ্টা পর স্থগিত কেন্দ্রে ভোট শুরু

এক ঘণ্টা পর স্থগিত কেন্দ্রে ভোট শুরু

বিস্ফোরণ ও কেন্দ্রে ঢুকে বিএনপির কাউন্সিলর প্রার্থীকে মারধরের পর কুমিল্লা...
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
© স্বত্ব প্রথম আলো ১৯৯৮ - ২০১৭
সম্পাদক ও প্রকাশক: মতিউর রহমান
সিএ ভবন, ১০০ কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভেনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা ১২১৫
ফোন: ৮১৮০০৭৮-৮১, ফ্যাক্স: ৯১৩০৪৯৬, ইমেইল: info@prothom-alo.info