সব

সোনালি অতীত নিয়ে টেলিভিশন জাদুঘর

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট সংস্করণ

তরুণ প্রজন্ম বরাবরই গৌরবোজ্জ্বল অতীতের ইতিহাস জানতে চায়। তা থেকে তরুণেরা রোমাঞ্চিত হন। আর পুরোনোদের আগ্রহ, তাঁদের কাজগুলো এক জায়গায় সংরক্ষিত থাকবে। তা দেখে তাঁরা হবেন স্মৃতিকাতর এবং জীবনকে নতুন করে আবিষ্কার করবেন। টেলিভিশন মিউজিয়াম চালু উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রামপুরায় বাংলাদেশ টেলিভিশন সদর দপ্তরে প্রথম আলোকে এসব কথা বলেন মহাপরিচালক হারুন অর রশীদ।
সব বয়সের মানুষকে সোনালি অতীতে ফিরিয়ে নিতে চালু হয়েছে টেলিভিশন মিউজিয়াম। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় আনুষ্ঠানিকভাবে এর উদ্বোধন করেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। অনুষ্ঠানে এসেছিলেন বাংলাদেশ টেলিভিশনের শুরুর দিককার অনেক শিল্পী, কর্মকর্তা ও কলাকুশলী। ছিলেন এখনকারও অনেকে। তাঁরা মিউজিয়াম ঘুরে দেখে হয়েছেন স্মৃতিকাতর।
রামপুরায় বাংলাদেশ টেলিভিশনের সদর দপ্তরের নিচতলায় ঢুকতেই বাঁ দিকে চোখে পড়ল বিশালাকারের একটি ক্যামেরা। জার্মানির তৈরি কেসিকে৪০ মডেলের এই ক্যামেরা সংগ্রহ করা হয়েছিল ১৯৮০ সালে। এমন আরও অনেক ক্যামেরা, সম্প্রচার যন্ত্রপাতি, নাটকের চিত্রনাট্য, উল্লেখযোগ্য বিভিন্ন নাটকের স্থিরচিত্রসহ বাংলাদেশ টেলিভিশনের অনেক দুর্লভ সংগ্রহ আগ্রহীরা দেখতে পারবেন এই টেলিভিশন মিউজিয়ামে।
নব্বইয়ের দশকের জনপ্রিয় অভিনয়শিল্পী আফসানা মিমি ঘুরতে ঘুরতে একটা ছবির সামনে গিয়ে দাঁড়িয়ে গেলেন। শহীদুজ্জামান সেলিম ও আফসানা মিমির সেই ছবিটি কোথাও কেউ নেই নাটকের। বললেন, ‘আমাদের শৈশব-কৈশোর কেটেছে বিটিভি দেখে। দারুণ সব অনুষ্ঠান দেখে বড় হয়েছি। বিটিভির কারণেই আজকের এই পর্যায়ে আমি এসেছি। বিভিন্ন সময়ে যাঁদের সঙ্গে কাজ করেছি, তাঁদের ফটোগ্রাফ বাঁধাই করে টাঙানো আছে এই মিউজিয়ামে।’
বিটিভির মহাপরিচালক হারুন অর রশীদ বলেন, ‘এটা বিটিভি মিউজিয়াম না, এটাকে আমরা টেলিভিশন মিউজিয়াম বলছি। এটার মালিকানা টেলিভিশন-সংশ্লিষ্ট সবার। এখানে এসে মানুষ টেলিভিশনের বিবর্তনের ইতিহাস সম্পর্কে জানতে পারবেন। টেলিভিশনের যাত্রা শুরু থেকে এখন পর্যন্ত একটা ভ্রমণও হয়ে যাবে।’
টেলিভিশন মিউজিয়ামের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন নওয়াজিশ আলী খান, ড. ইনামুল হক, আতাউর রহমান, ফরিদা পারভীন, কেরামত মওলা, আল মনসুর, ফেরদৌস আরা, সিমিন হোসেন রিমি প্রমুখ।
আগ্রহীরা যে কেউ চাইলে টেলিভিশন মিউজিয়াম ঘুরে আসতে পারেন। ছুটির দিন ছাড়া প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা ও বেলা আড়াইটা থেকে বিকেল সাড়ে চারটা পর্যন্ত খোলা থাকবে।

চার বছর ধরে চলছে খোঁড়াখুঁড়ি

চার বছর ধরে চলছে খোঁড়াখুঁড়ি

ওসির যোগসাজশে বাড়ি দখলের অভিযোগ

ওসির যোগসাজশে বাড়ি দখলের অভিযোগ

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
1 2 3 4
 
আরও মন্তব্য

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

‘ঝিলপাড়ে শিশুপার্ক, লেক ও ওয়াকওয়ে নির্মাণ করা হবে’

‘ঝিলপাড়ে শিশুপার্ক, লেক ও ওয়াকওয়ে নির্মাণ করা হবে’

২০১৫ সালের নির্বাচনে এই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন গোলাম আশরাফ...
মিরপুর ও পুরান ঢাকায় পানিতে দুর্গন্ধ

মিরপুর ও পুরান ঢাকায় পানিতে দুর্গন্ধ

রাজধানীর মিরপুর ২ নম্বর সেকশন, কমলাপুর ও পুরান ঢাকায় ওয়াসার লাইনে ময়লা ও...
রূপরেখা চূড়ান্ত

বাংলাদেশ–ভারত প্রতিরক্ষা সহযোগিতা রূপরেখা চূড়ান্ত

প্রতিরক্ষা সহযোগিতাকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে বাংলাদেশ ও ভারত পাঁচ বছর মেয়াদি...
ব্রিটিশ পার্লামেন্টে অধিবেশন চলাকালে সন্ত্রাসী হামলা

এক পুলিশ সদস্যসহ নিহত ৪ :ব্রিটিশ পার্লামেন্টে হামলা ব্রিটিশ পার্লামেন্টে অধিবেশন চলাকালে সন্ত্রাসী হামলা

যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টের বাইরে গতকাল বুধবার সন্ত্রাসী হামলায় পুলিশ...
মুহিতের সামনেই মিসবাহর ইচ্ছা!

মুহিতের সামনেই মিসবাহর ইচ্ছা!

‘আমি জীবনেও জনপ্রতিনিধি হতে পারিনি। যেহেতু আমাদের সুযোগ্য অর্থমন্ত্রী...
ভুট্টোর চোখে শেখ মুজিব

মার্চ ১৯৭১ ভুট্টোর চোখে শেখ মুজিব

একাত্তরের মার্চে আমাদের এই অঞ্চলে বিরাট একটা পরিবর্তন ঘটে গেল। তাসের ঘরের...
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
© স্বত্ব প্রথম আলো ১৯৯৮ - ২০১৭
সম্পাদক ও প্রকাশক: মতিউর রহমান
সিএ ভবন, ১০০ কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভেনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা ১২১৫
ফোন: ৮১৮০০৭৮-৮১, ফ্যাক্স: ৯১৩০৪৯৬, ইমেইল: info@prothom-alo.info