সব

বন্দরে ব্যবসায়ী রিপন খুন

ছাত্রলীগের কর্মীদের আসামি করতে এসপির কাছে আবেদন

নিজস্ব প্রতিবেদক, নারায়ণগঞ্জ
প্রিন্ট সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জের বন্দরে ছুরিকাঘাতে ব্যবসায়ী রিপন খুনের ঘটনায় ছাত্রলীগের স্থানীয় কয়েক কর্মীকে আসামি করার আবেদন জানিয়েছেন রিপনের পরিবারের সদস্যরা। এ জন্য সম্পূরক এজাহার গ্রহণ করতে গতকাল বুধবার নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপারকে অনুরোধ করেছেন তাঁরা।
রিপনের ভাই মামলার বাদী মাসুদ রানা গতকাল দুপুরে পুলিশ সুপার মঈনুল হকের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে সম্পূরক এজাহারটি দাখিল করেন।
সম্পূরক এজাহারে উল্লেখ করা হয়, ৮ অক্টোবর রাত সাড়ে আটটার দিকে ব্যবসায়ী রিপনকে মুঠোফোনের মাধ্যমে ডেকে নেন ছাত্রলীগের কর্মী অহিদুজ্জামান, নাজমুল, আমজাদ, মোমেন ও হুমায়ন। তিনি (রিপন) ধামগড় ইউনিয়নের ইস্পাহানি বাজারে রূপায়ণ মসজিদের সামনের রাস্তায় পৌঁছালে তাঁর পথরোধ করেন উল্লিখিত পাঁচজন ও অজ্ঞাতনামা আরও দুই-তিনজন। তাঁরা প্রথমে রিপনকে এলোপাতাড়ি কিলঘুষি ও লাথি মেরে আহত করেন। একপর্যায়ে অহিদুজ্জামান ও হুমায়ন কবির তাঁকে ছুরিকাঘাত করেন। পথচারীরা গুরুতর আহত রিপনকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করান। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় পরে তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।
সম্পূরক এজাহারে মাসুদ রানা আরও বলেন, ছাত্রলীগের অভিযুক্ত নেতা মোমেন ৯ অক্টোবর তাঁকে (মাসুদ) বন্দর থানায় ডেকে নেন। এ সময় তাঁকে ভয়ভীতি দেখিয়ে একটি এজাহারে স্বাক্ষর দিতে বাধ্য করা হয়। এমনকি তাঁকে এজাহারটি পড়ারও সুযোগ দেওয়া হয়নি।
মাসুদ রানা প্রথম আলোকে বলেন, তিনি সম্পূরক এজাহার দিতে গত রোববার বিকেলে বন্দর থানায় গিয়েছিলেন। কিন্তু পুলিশ সেটি গ্রহণে অস্বীকৃতি জানায়। এ কারণে তিনি পুলিশ সুপারের কাছে গিয়ে সম্পূরক এজাহার জমা দিয়েছেন।
রিপনের শাশুড়ি হাজেরা বেগম বলেন, ‘গণমাধ্যমের কাছে প্রকৃত চিত্র তুলে ধরার পর থেকেই মীমাংসায় রাজি করতে আমাদের নানাভাবে চাপ সৃষ্টি করা হচ্ছে। এ জন্য অর্থের প্রলোভনও দেওয়া হয়েছে। কিন্তু আমরা তাতে রাজি হইনি।’
এ প্রসঙ্গে ছাত্রলীগের কর্মী ও নাজিমউদ্দিন ভূঁইয়া ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থী অহিদুজ্জামান বলেন, ‘এ অভিযোগ সম্পূর্ণরূপে মিথ্যা, বানোয়াট ও বিভ্রান্তিকর। আমাকে ও ব্যবসায়ী রিপনকে হত্যা করার উদ্দেশ্যেই হামলা চালানো হয়েছিল। ওই সময় আমি ও ছাত্রলীগের আরেক কর্মী নাজমুল আহত হয়েছিলাম।’

default image

ঢাকা-লন্ডন অংশীদারত্ব সংলাপ আগামী সপ্তাহে

default image

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে নাইকো দুর্নীতি মামলার কার্যক্রম চলবে

default image

চট্টগ্রামে হামলায় আহত ২ জায়ের অবস্থা স্থিতিশীল

default image

দুই বিচারককে সতর্ক করলেন হাইকোর্ট

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
1 2 3 4
 
আরও মন্তব্য

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

default image

রাজধানী সুপার মার্কেটে আবার চাঁদাবাজি!

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশের এক বছর পরও টিকাটুলীর রাজধানী সুপার মার্কেটে...
default image

লালবাগে স্ত্রী হত্যার অভিযোগে স্বামী গ্রেপ্তার

পুরান ঢাকার শহীদনগরে নুরুননাহার (২৫) নামের এক গৃহবধূকে হত্যার ঘটনায় জড়িত...
default image

একুশে পদকপ্রাপ্ত চার গুণীকে সংবর্ধনা তাঁদের অর্জন চট্টগ্রামবাসীর জন্য কম গৌরবের নয়

চট্টগ্রাম দীর্ঘদিন ধরে অবহেলিত। কিন্তু এবার এ অঞ্চল থেকেই চার গুণীজন একুশে...
default image

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় চিকিৎসকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগের প্রমাণ মেলেনি

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারের একজন চিকিৎসকের বিরুদ্ধে যৌন...
নেপথ্যে তিন কৌশল

প্রধানমন্ত্রীর আগাম নির্বাচনী প্রচার নেপথ্যে তিন কৌশল

জেলা সফরের মাধ্যমে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রচারণা কার্যত শুরু করে...
শুনছি ২৫ মে চুক্তি হবে, আমি কিচ্ছু জানি না

তিস্তা চুক্তি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা শুনছি ২৫ মে চুক্তি হবে, আমি কিচ্ছু জানি না

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, ‘শুনছি ২৫ মে...
তদন্তের পর তদন্ত, শাস্তি হয়নি কারও

ক্রেস্টের স্বর্ণের ১২ আনাই মিছে! তদন্তের পর তদন্ত, শাস্তি হয়নি কারও

মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটি, এরপর অধিকতর তদন্ত কমিটি। এর বাইরে সংসদীয় কমিটির...
এটি ভৌতিক কোনো সিনেমার কাহিনি নয়

এটি ভৌতিক কোনো সিনেমার কাহিনি নয়

বাসা ভাড়া নেওয়ার নাম করে ঘরে ঢোকেন এক তরুণীসহ চারজন। বাড়ির তত্ত্বাবধায়ককে...
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
© স্বত্ব প্রথম আলো ১৯৯৮ - ২০১৭
সম্পাদক ও প্রকাশক: মতিউর রহমান
সিএ ভবন, ১০০ কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভেনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা ১২১৫
ফোন: ৮১৮০০৭৮-৮১, ফ্যাক্স: ৯১৩০৪৯৬, ইমেইল: info@prothom-alo.info