সব

ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে চলছে ডাকঘরের কার্যক্রম

দুপচাঁচিয়া (বগুড়া) প্রতিনিধি
প্রিন্ট সংস্করণ

বগুড়ার দুপচাঁচিয়া ডাকঘরের ছাদের পলেস্তারা খসে রড বেরিয়ে গেছে। সম্প্রতি তোলা ছবি l প্রথম আলোভেজা স্যাঁতসেঁতে ছাদ। পলেস্তারা খসে ছাদের রড বেরিয়ে গেছে। দেয়ালেও বড় বড় ফাটল। এই চিত্র বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলা ডাকঘরের। এর মধ্যেই ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছেন কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।
সরেজমিনে গত বৃহস্পতিবার দেখা যায়, ডাকঘরের পলেস্তারা খসে ছাদের কয়েকটি স্থানে ঢালাইয়ের রড বের হয়ে গেছে। ছাদের বিমে ফাটল ধরেছে। সিলিং ফ্যানের হুকগুলোয় মরিচা ধরেছে। গত বছর হুক খুলে একটি সিলিং ফ্যান খুলে নিচে পড়ে যায়। তবে ওই দুর্ঘটনায় কেউ আহত হননি। এরপর সব ফ্যান খুলে রাখা হয়। কর্মকর্তারা এখন টেবিল ফ্যান ব্যবহার করেন। কার্যালয়টির দেয়ালেও বড় বড় ফাটল ধরেছে। ভবনের মেঝের ঢালাই উঠে গিয়ে তা দেবে গেছে। বর্ষার সময় কার্যালয়ের কাগজপত্র সব সময় পলিথিন দিয়ে ঢেকে রাখা হয়। বৈদেশিক ও ই-মোবাইলে টাকা লেনদেনের জন্য সম্প্রতি ডাক বিভাগ কম্পিউটার দিয়েছে এ কার্যালয়ে। সেটিও পলিথিন দিয়ে ঢেকে রাখা হয়েছে। তিন কক্ষের এ জরাজীর্ণ ডাকঘরটিতে কার্যক্রম চালানো ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। কার্যালয়ের পাশে পোস্টমাস্টারের আবাসিক ভবন। ওই ভবনটিরও একই অবস্থা।
গত বৃহস্পতিবার ডাকঘরে সঞ্চয় হিসাবের টাকা নিতে আসেন অবসরপ্রাপ্ত স্কুলশিক্ষক রণজিৎ সাহা। তিনি বলেন, প্রতি মাসে একবার পোস্ট অফিসে আসতে হয়। ভবনের ভেতরে বেশিক্ষণ থাকলে বুকের ভেতর ধড়ফড় করে। খানিক পরপর ছাদ থেকে বালু ঝুরঝুর করে মাথায় পড়ে। দেয়ালের ফাটল দিয়ে বাইরে থেকে অনায়াসে সাপ ঢুকে পড়তে পারে।
জোগারপাড়ার আবদুল কুদ্দুস বলেন, ‘বেশি লাভের আশায় ব্যাংকে টাকা না রেখে পোস্ট অফিসে রেখেছি। অনেক দিন ধরে পোস্ট অফিসের এ অবস্থা। দেখে মনে হয় পোস্ট অফিসের কর্মকর্তারা নাকে তেল দিয়ে ঘুমাচ্ছেন। দুর্ঘটনায় গ্রাহক মারা গেলে তাঁদেরই বা কী!’
কর্মরত পোস্টমাস্টার আহম্মদ আলী বলেন, তিনি আড়াই বছর ধরে এ কার্যালয়ে দায়িত্ব পালন করছেন। চিঠিপত্রের কাজের চেয়ে এখানে টাকা লেনদেনের ভিড় বেশি। এ কার্যালয়টি প্রায় দেড় যুগ আগে নির্মাণ করা হয়। চাকরি করেন বলে সবকিছু মেনে নিতে হচ্ছে। কোনো সুস্থ মানুষ এসব ভবনে থাকবেন না। তিনি একাধিকবার ভবনের এ দুর্দশা ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানিয়েছেন। কিন্তু কোনো ফল মেলেনি।
বগুড়া প্রধান ডাকঘরের তত্ত্বাবধায়ক (সুপারিনটেনডেন্ট) আফজাল হোসেন মুঠোফোনে বলেন, দুপচাঁচিয়া ডাকঘর ভবনের অবস্থা রাজশাহী প্রধান ডাকঘরের ভবন নির্মাণ বিভাগে জানানো হয়েছে। বরাদ্দ এলেই সংস্কারের কাজ করা হবে।

default image

ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ করায় গৃহবধূকে কান ধরে ওঠবস!

উত্ত্যক্তকারীদের পক্ষে তদবিরকারীদেরও দণ্ড

উত্ত্যক্তকারীদের পক্ষে তদবিরকারীদেরও দণ্ড

শ্লীলতাহানির চেষ্টায় ছাত্রীর আত্মহত্যা : প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

শ্লীলতাহানির চেষ্টায় ছাত্রীর আত্মহত্যা : প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

নাটোরে বড়াল নদে মরছে মাছ

নাটোরে বড়াল নদে মরছে মাছ

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
1 2 3 4
 
আরও মন্তব্য

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

যারা সত্য লুকাচ্ছে তাদের শাস্তি চাই: রাউধার বাবা

যারা সত্য লুকাচ্ছে তাদের শাস্তি চাই: রাউধার বাবা

রাজশাহীতে মালদ্বীপের মডেল ও মেডিকেল কলেজ শিক্ষার্থী রাউধা আথিফের মৃত্যুর...
এক বছরেও বিচার শুরু হয়নি শিক্ষক রেজাউল হত্যার

এক বছরেও বিচার শুরু হয়নি শিক্ষক রেজাউল হত্যার

এক বছর পার হলেও প্রিয় শিক্ষক এ এফ এম রেজাউল করিম সিদ্দিকী হত্যার বিচার শুরু...
default image

মৃত ব্যক্তির প্রতিষ্ঠানের মালিক সেজে টাকা উত্তোলন

রাজশাহীতে এক মৃত ব্যক্তির মালিকানাধীন ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মালিক সেজে তাঁর...
default image

খুদে শিক্ষার্থীদের সঞ্চয় সাড়ে ৫ কোটি টাকা

নওগাঁয় এ পর্যন্ত ২৫ হাজার ৫৮৭ জন খুদে শিক্ষার্থী স্কুল ব্যাংকিং সেবার আওতায়...
‘আইপি লগ’ কমপক্ষে এক বছর সংরক্ষণে বিটিআরসির নির্দেশ

সাইবার অপরাধ ‘আইপি লগ’ কমপক্ষে এক বছর সংরক্ষণে বিটিআরসির নির্দেশ

দেশের সব ইন্টারনেট সেবাদানকারী (আইএসপি) প্রতিষ্ঠানকে ‘আইপি লগ’ কমপক্ষে এক বছর...
ছেলের হাতে পুরস্কার তুলে দিলেন শাকিব

ছেলের হাতে পুরস্কার তুলে দিলেন শাকিব

মেরিল-প্রথম আলো তারকা জরিপ পুরস্কার ২০১৬-তে সেরা চলচ্চিত্র অভিনেতা বিভাগে জয়ী...
বেতন বাড়ায় খুশি

বিসিবিকে ক্রিকেটারদের ধন্যবাদ বেতন বাড়ায় খুশি

আপাতদৃষ্টিতে মনে হতে পারে, খেলোয়াড়দের দাবি পুরোপুরি পূরণ করেনি বিসিবি।...
default image

ভালো থাকুন চুলহীন মাথায় নতুন চুল

প্রতিদিন ৫০ থেকে ১০০টা চুল পড়ে যাওয়া স্বাভাবিক। রক্তশূন্যতা, সন্তান প্রসবের...
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
© স্বত্ব প্রথম আলো ১৯৯৮ - ২০১৭
সম্পাদক ও প্রকাশক: মতিউর রহমান
সিএ ভবন, ১০০ কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভেনিউ, কারওয়ান বাজার, ঢাকা ১২১৫
ফোন: ৮১৮০০৭৮-৮১, ফ্যাক্স: ৯১৩০৪৯৬, ইমেইল: info@prothom-alo.info